rss

সেহরি ও ইফতার | রমজান-

শিরোনাম
বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ফ্রান্স, বিৃবতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র <> 'অধিকার' সম্পাদক আদিলুর রহমান খান ও পরিচালক নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন <> অবরোধকারীদের ছোড়া পেট্রল বোমায় দগ্ধ বীমা কর্মকর্তা শাহীনা আক্তার (৩৮) ও ফল ব্যবাসায়ী মো. ফরিদ (৫০) মারা গেছেন <> সংখ্যালঘুদের ওপর বারবার হামলা হলে তার পরিণাম হবে আত্মঘাতী, মন্তব্য যোগাযোগমন্ত্রীর <> ভারতের মহারাষ্ট্রে চলন্ত ট্রেনে আগুন লেগে এক নারীসহ অন্তত ৯ জন নিহত
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ১৯ জুন ২০১৫, ০১:৫৮:৪৪অ-অ+
printer

চার পেসারের বাংলাদেশ

নাজমুল হক নোবেল
টেস্টের মতো ওয়ানডে সিরিজও চমক দিয়ে শুরু করল বাংলাদেশ। ফতুল্লায় সিরিজের একমাত্র টেস্টে এক পেসার নিয়ে সবাইকে অবাক করে দিয়েছিলেন বাংলাদেশ কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। গতকাল ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে একাদশে চার পেসার দেখে বিস্ময় ছুঁয়ে যায়। বাংলাদেশ এমনিতেই পেসারবিমুখ দল। তার ওপর উপমহাদেশীয় কন্ডিশনে ঐতিহাসিকভাবেই একটু বাড়তি সহায়তা পান স্পিনাররা। সেখানে হাথুরু-মাশরাফির চার পেসার দিয়ে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন ভারতকে!
'আমি বিশ্বাস করি এই মুহূর্তে আমার কাছে বেশ ভালো একটা পেস অ্যাটাক আছে। যারা যে কোনো দলকে গুঁড়িয়ে দিতে পারে'_ আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফির এ কথাতেই ইঙ্গিতটা ছিল। এরপরও অনেকে ব্যাপারটা আঁচ করতে পারেননি। করবেনই বা কীভাবে? টেস্ট যেখানে খেলতে নেমেছিল এক পেসার নিয়ে। চার পেসার তত্ত্ব বাস্তবায়ন করতে গিয়ে কাটা পড়েছেন বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানি। যিনি কি-না ঘরের মাঠে কয়েক মাস বেশ ভালো বোলিং করছিলেন। তরুণ পেসার মুস্তাফিজুর রহমানের জন্য জায়গা ছেড়ে দিতে হয়েছে তাকে। দারুণ সম্ভাবনাময় ১৯ বছরের তরুণ মুস্তাফিজ। প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে (টি২০) বাঁহাতি এ পেসার ভড়কে দিয়েছিলেন পাকিস্তানের মোহাম্মদ হাফিজ, শহীদ আফ্রিদিদের মতো ব্যাটসম্যানদের। গতকাল ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন-আপকে একাই ধসিয়ে দেন তিনি। প্রথম পরীক্ষাতেই মাশরাফি-রুবেল-তাসকিন-মুস্তাফিজ পেস ব্যাটারি ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনের বিপক্ষে দারুণ সফল। এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কী হতে পারে!
বাংলাদেশের ব্যাটিং শুরু করে মেঘলা আকাশ মাথায় নিয়ে। পনের ওভার শেষে বৃষ্টিও আসে। মজার বিষয় হলো, এমন কন্ডিশনে একটুও সুবিধা পাননি ভারতীয় পেসাররা। প্রথম পনের ওভারে তাদের তিন পেসারই বেধড়ক পিটুনি খেয়েছেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার তামিম ও সৌম্যর কাছে। ওভার পিছু আটের উপরে রান তুলেছেন তারা। তবে দুই স্পিনার রবিচন্দন অশ্বিন এবং সুরেশ রায়না আক্রমণে আসতেই কমে যায় রান তোলার গতি। পড়তে থাকে উইকেটও। ভারতীয়দের বোলিং দেখে মনে হয়েছে, উইকেটে বাউন্স নেই তেমন একটা, আর মুভমেন্ট তো বলতেই নেই। উইকেটে বল পড়ে মন্থর হয়ে যায়। এ উইকেটেই কি-না ঝড় তুললেন মুস্তাফিজ-তাসকিন। বিশেষ করে মুস্তাফিজ, অভিষেকেই পাঁচ উইকেট নিয়ে যেন নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। এমন উইকেটে তাকে একাদশে নিয়ে যে কোনো ভুল করেননি সেটা প্রমাণ করে দেন বাঁহাতি এ পেসার।
সবাই একটু অবাক হলেও এ প্রথম চার পেসার নিয়ে খেলতে নামেনি বাংলাদেশ। ১৯৮৬ সালে ওয়ানডে স্ট্যাটাস পাওয়ার পর প্রথম দুটি ম্যাচেই চার পেসার দিয়ে একাদশ সাজিয়েছিল টাইগাররা। তবে দুটি ম্যাচই ছিল দেশের বাইরে, পাকিস্তান ও শ্রীলংকায়। দেশের মাটিতেও ১৩ বছর আগে চার পেসার নিয়ে খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। ২০০২ সালের ২৪ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের পেসাররা ছিলেন মঞ্জুরুল ইসলাম, মোহাম্মদ শরীফ, তারেক আজিজ এবং খালেদ মাহমুদ সুজন। ওই ম্যাচে ইনজামাম-আফ্রিদিদের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত বোলিং করেছিলেন বাঁহাতি পেসার মঞ্জুরুল ইসলাম। বাকি তিনজন মোটেও ভালো করতে পারেননি। আড়াই বছর পর চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষেও চার পেসার নিয়ে খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ। সেদিন দলে ছিলেন তাপস বৈশ্য, মুশফিক বাবু, নাজমুল হোসেন এবং খালেদ মাহমুদ সুজন। ২০০৪ সালে ভারতের বিপক্ষে প্রথম জয়েও ছিলেন চার পেসার। মাশরাফি, তাপস বৈশ্য, নাজমুল, খালেদ মাহমুদরা সেদিন ১৫ রানের জয় এনে দিয়েছিলেন। তবে ওই পেসারদের সঙ্গে গতকালের একাদশে থাকা চারজনের একটা পার্থক্য আছে। খালেদ মাহমুদ সুজন, মোহাম্মদ শরীফ, মুশফিক বাবুরা ছিলেন মিডিয়াম পেসার। তাদের আরও একটি বড় পরিচয়_ তারা দলে সুযোগ পেতেন অলরাউন্ডার হিসেবে। লাইন-লেন্থ কিংবা বড় জোর একটু-আধটু সুইং ছিল তাদের ভরসা। এই চার পেসারই যে 'জেনুইন পেসার'! বাউন্স, গতি, সুইং_ কি নেই তাদের ঝুলিতে! বদলে যাওয়া বাংলাদেশের ক্রিকেটের এগিয়ে যাওয়ার সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন এ চার পেসার!
মন্তব্য
সর্বশেষ ১০ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved