rss

সেহরি ও ইফতার | রমজান-

শিরোনাম
বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ফ্রান্স, বিৃবতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র <> 'অধিকার' সম্পাদক আদিলুর রহমান খান ও পরিচালক নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন <> অবরোধকারীদের ছোড়া পেট্রল বোমায় দগ্ধ বীমা কর্মকর্তা শাহীনা আক্তার (৩৮) ও ফল ব্যবাসায়ী মো. ফরিদ (৫০) মারা গেছেন <> সংখ্যালঘুদের ওপর বারবার হামলা হলে তার পরিণাম হবে আত্মঘাতী, মন্তব্য যোগাযোগমন্ত্রীর <> ভারতের মহারাষ্ট্রে চলন্ত ট্রেনে আগুন লেগে এক নারীসহ অন্তত ৯ জন নিহত
প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৫, ২১:০৮:০০অ-অ+
printer

'বিএনপি থেকে খালেদাকে বাদ দেওয়ার আওয়াজ উঠেছে'

সমকাল প্রতিবেদক
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, 'খালেদা জিয়া বিশ্বজঙ্গি নেতা। তার ব্যর্থতা ও ভুল সিদ্ধান্তের কারণে বিএনপির মধ্য থেকেই তাকে বাদ দেওয়ার আওয়াজ উঠেছে। দলের নেতাকর্মীদের বিরাগভাজন হয়ে তিনি সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলে আলোচনায় থাকতে চাইছেন।'
 
বুধবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২৩ জুন দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত যৌথ সভা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।
 
'আওয়ামী লীগ জঙ্গি তৈরি করে'-খালেদা জিয়ার এমন অভিযোগ নাকচ করে তিনি আরও বলেন, 'বিএনপি এ দেশে জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটিয়েছে। তারাই যে জঙ্গিদের মদদ দিচ্ছে, তা জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। জামায়াত-শিবির ও বিএনপি একই প্রক্রিয়ায় সন্ত্রাস ও নাশকতা চালাচ্ছে। বিএনপি ও জামায়াত মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ।'
 
হানিফ বলেন, 'বিএনপির রাজনীতি ভারত বিরোধিতার ওপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠিত। অথচ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের আগে বিএনপি স্বপ্রণোদিত হয়েই বলেছিল, তারা ভারতবিরোধী নয়। মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ পাওয়ার জন্যই মূলত খালেদা জিয়া এ ধরনের কথা বলেছেন। তারা যে আদর্শ লালন করে তার সবগুলোই ভারতবিরোধী।'
 
তিনি বলেন, 'নরেন্দ্র মোদির সফরকালে অন্য দলগুলোর নেতাদের মতো খালেদা জিয়াও তার সঙ্গে দেখা করেছেন। অন্য কোনো দলের সঙ্গে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নিয়ে আলোচনা না করলেও খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতে মোদি এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এ থেকেই প্রমাণ হয়, খালেদা জিয়ার জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নিয়ে ভারতও উদ্বিগ্ন।'
 
আওয়ামী লীগের এই নেতা জানান, রমজানের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠিত হবে। এ কারণে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করে কীভাবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা যায়, তা নিয়েই যৌথ সভায় আলোচনা হয়েছে। দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা দেশে ফিরলে তার সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
 
সভায় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী-ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতারা যোগ দেন।
 
উপস্থিত ছিলেন ডা. দীপু মনি, আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, এমএ আজিজ, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, অসীম কুমার উকিল, সুজিত রায় নন্দী, এস এম কামাল হোসেন, মোতাহার হোসেন মোল্লা, নাজমা আক্তার প্রমুখ।
এ সংক্রান্ত আরো খবর
মন্তব্য
সর্বশেষ ১০ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved