rss

সেহরি ও ইফতার | রমজান-

শিরোনাম
বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ফ্রান্স, বিৃবতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র <> 'অধিকার' সম্পাদক আদিলুর রহমান খান ও পরিচালক নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন <> অবরোধকারীদের ছোড়া পেট্রল বোমায় দগ্ধ বীমা কর্মকর্তা শাহীনা আক্তার (৩৮) ও ফল ব্যবাসায়ী মো. ফরিদ (৫০) মারা গেছেন <> সংখ্যালঘুদের ওপর বারবার হামলা হলে তার পরিণাম হবে আত্মঘাতী, মন্তব্য যোগাযোগমন্ত্রীর <> ভারতের মহারাষ্ট্রে চলন্ত ট্রেনে আগুন লেগে এক নারীসহ অন্তত ৯ জন নিহত
প্রকাশ : ১০ জানুয়ারি ২০১৪, ০০:০০:০০ | আপডেট : ১০ জানুয়ারি ২০১৪, ১০:০৯:৫৮অ-অ+
printer

সেনা থাকবে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত

সাহাদাত হোসেন পরশ

নির্বাচনী এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা ও ভোটারদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দেশের ৫৯ জেলায় আগামী ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত সেনাসদস্যরা মাঠে থাকছেন।সেনা থাকবে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত

যে ছয়টি জেলায় নির্বাচন স্থগিত হয়েছে, সেখানে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবে সেনাবাহিনী। সেনাসদস্যদের নির্বাচনী দায়িত্বে মাঠে থাকার সময়সীমা বাড়াতে সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতর থেকে আর্মড ফোর্স ডিভিশনে চিঠি পাঠানো হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র সমকালকে এই তথ্য নিশ্চিত করে। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালনে গত ২৬ জানুয়ারি থেকে ৫৯ জেলায় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়।

নির্বাচন কমিশন জানিয়েছিল, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের চার দিন পর ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত সেনা মোতায়েন থাকবে।

পরে অবশ্য প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ জানান, সংঘাতপূর্ণ নির্বাচনী এলাকায় সেনা সদস্যদের মাঠে থাকার সময়সীমা বাড়তে পারে।

নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ সমকালকে বলেন, নির্বাচনী এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ২৬ ডিসেম্বর থেকে ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত সেনা সদস্যরা মাঠে থাকার বাজেট দেওয়া হয়েছিল। যেসব এলাকায় নির্বাচন স্থগিত হয়েছে, সেখানে ১৮ জানুয়ারী পর্যন্ত সেনা সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবে। এর বাইরে কোনো তথ্য আমার জানা নেই।

নির্বাচন কমিশনের সচিব ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেন, যেসব জেলায় নির্বাচন স্থগিত হয়েছে, এর বাইরে অন্য কোনো জেলায় সেনা সদস্যরা ৯ জানুয়ারির পর মাঠে থাকার তথ্য আমার জানা নেই। ৯ জানুয়ারির পর সেনা সদস্যদের মাঠে রাখার সিদ্ধান্ত সরকার চাইলে নিতে পারে। এটা নির্বাচন কমিশনের কোনো ব্যাপার নয়।

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বৃহস্পতিবার সেনা সদস্যরা কড়া প্রহরায় ছিলেন। মহাসড়কের নিরাপত্তায় সেনা সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। আগামী ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন এলাকায় নিয়োজিত সেনা সদস্যরা একই দায়িত্ব পালন করবেন। শীতকালীন মহড়া শেষ হওয়ার পর পরই সেনা সদস্যরা নির্বাচনী দায়িত্ব পালন শুরু করেন। এরপর সেনা টহলের পর অনেক মহাসড়কে নাশকতা বন্ধ হওয়ায় জনমনে স্বস্তি ফিরে আসে।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে দেশের ৫৯ জেলায় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়। এর মধ্যে ভোলা ও বরগুনায় নৌবাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। ৫টি জেলার সব আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থীরা নির্বাচিত হওয়ায় সেখানে সেনা মোতায়েন করা হয়নি। নির্বাচন উপলক্ষে প্রত্যেক জেলায় এক ব্যাটালিয়ন (৭৪০ জন সদস্য) সেনা সদস্য মোতায়েন করা হয়।

জানা গেছে, দেশের যে ৮টি এলাকায় নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। সেগুলো হলো- দিনাজপুর-৪, কুড়িগ্রাম-৪, গাইবান্ধা-১, গাইবান্ধা-৩, গাইবান্ধা-৪, বগুড়া-৭, যশোর-৫ ও লক্ষ্মীপুর-১। এসব এলাকায় আগামী ১৬ জানুয়ারি ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এই ৮ নির্বাচনী এলাকায় আগামী ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত সেনা সদস্যরা মাঠে থাকবেন।

এ সংক্রান্ত আরো খবর
মন্তব্য
সর্বশেষ ১০ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved