rss

সেহরি ও ইফতার | রমজান-

শিরোনাম
বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ফ্রান্স, বিৃবতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র <> 'অধিকার' সম্পাদক আদিলুর রহমান খান ও পরিচালক নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন <> অবরোধকারীদের ছোড়া পেট্রল বোমায় দগ্ধ বীমা কর্মকর্তা শাহীনা আক্তার (৩৮) ও ফল ব্যবাসায়ী মো. ফরিদ (৫০) মারা গেছেন <> সংখ্যালঘুদের ওপর বারবার হামলা হলে তার পরিণাম হবে আত্মঘাতী, মন্তব্য যোগাযোগমন্ত্রীর <> ভারতের মহারাষ্ট্রে চলন্ত ট্রেনে আগুন লেগে এক নারীসহ অন্তত ৯ জন নিহত
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ০৯ জানুয়ারি ২০১৪অ-অ+
printer

সংখ্যালঘু নির্যাতন থামেনি

জয়পুরহাটে বাড়িতে আগুন, আতঙ্কে একজনের মৃত্যু, নাটোর, ত্রিশাল নেত্রকোনা নওগাঁয়ও হামলা
সমকাল ডেস্ক
জয়পুরহাটে সংখ্যালঘুদের বাড়িতে দেওয়া আগুনের লেলিহান শিখায় আতঙ্কিত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। নাটোরের নলডাঙ্গায় দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে পুড়ে গেছে আওয়ামী লীগ নেতার বাড়ি এবং হিন্দু বাড়ির খড়ের গাদা। ত্রিশাল ও নেত্রকোনায় মন্দিরে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। মৌলভীবাজারে হামলার ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সংখ্যালঘু পরিবারের লোকজন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :
জয়পুরহাট প্রতিনিধি জানান, জামায়াত-শিবির আর বিএনপিকর্মীদের দেওয়া আগুনে একে একে পুড়ছে জয়পুরহাটে সংখ্যালঘুদের বাড়িঘর। জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির রায় ঘোষণার পর গত বছরের ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে শুরু হওয়া সহিংসতা চলছেই। সর্বশেষ জামায়াত-শিবিরের হিংসার বলি হলেন সুজেন চন্দ্র দাস। মঙ্গলবার রাতে সোনাকুল গ্রামে এক পল্লীতে জামায়াত-শিবিরের দেওয়া আগুনে নিজেদের বিশাল
খড়ের গাদা পুড়তে দেখে আতঙ্কে মারা গেছেন সুজেন চন্দ্র দাস (৫৮)। ওই রাতেই সদর উপজেলার পূর্ব পারুলিয়া গ্রামে আগুন দেওয়া হয় সুকুমার দাসের বাড়িতে। পাঁচবিবি পৌর এলাকায় এক ব্যবসায়ীর ব্যবসা
প্রতিষ্ঠান জ্বালিয়ে দেওয়া হয় একই রাতে। অব্যাহতভাবে সংখ্যালঘুদের বাড়িতে আগুন দেওয়ার ঘটনায় তারা এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।
জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে পাঁচবিবি উপজেলায় সোনাকুল গ্রামের জিতেন্দ্রনাথ দাসের বিশাল খড়ের গাদায় আগুন দেয় শিবিরকর্মীরা। এ সময় বাড়ির ভেতর থেকে সবাই আগুন নেভাতে আসে। প্রতিবেশীরাও এগিয়ে আসে। জিতেন্দ্রনাথ দাসের ভাই সুজেন চন্দ্র দাস বাড়ি থেকে বেরিয়ে আগুন দেখে স্তম্ভিত ও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। একপর্যায়ে আতঙ্কিত সুজেন মাটিতে ঢলে পড়েন। এর আগে ওই পরিবারের খড়ের গাদায় জামায়াত-শিবিরকর্মীরা গত বছরের ৪ মার্চ রাতেও আগুন দিয়েছিল।
একই রাতে পাঁচবিবির পৌর এলাকার কবরস্থান রোডে ব্যবসায়ী জাহিদুল ইসলামের মুদির দোকানে আগুন দিলে পুরো দোকান ভস্মীভূত হয়। ওই রাতে জয়পুরহাট সদর উপজেলার পূর্ব পারুলিয়া গ্রামের সুকুমার দাসের বাড়িতে আগুন দেওয়া হয়। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ সুপার হামিদুল আলম, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডলসহ প্রশাসনের লোকজন ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চল সফর করেন।
নাটোর প্রতিনিধি জানান, নলডাঙ্গা উপজেলার ছাতরভাগ গ্রামে দুর্বৃত্তরা আওয়ামী লীগ কর্মীর বাড়ি ও সিংড়া উপজেলার দুটি গ্রামের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ৮টি খড়ের গাদায় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে এই অগি্নসংযোগের ঘটনা ঘটে। এ অগি্নকাণ্ডের ঘটনায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। অন্যদিকে এসব অগি্নসংযোগের ঘটনার প্রতিবাদ ও জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে বুধবার হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ জেলা প্রশাসনের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে।
ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি জানান, ত্রিশাল কালীরবাজার এলাকায় একটি মন্দিরে অগি্নসংযোগের চেষ্টা করে দুর্বৃত্তরা। ত্রিশাল থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ত্রিশাল উপজেলার কানিহারী ইউনিয়নের কালীরবাজার তিরখি গ্রামের তরফবাড়ী দয়াল মন্দিরে মঙ্গলবার রাতে দুর্বৃত্তরা মোটরসাইকেলে এসে এ ঘটনা ঘটায়। এলাকাবাসী টের পেয়ে আগুন নিভিয়ে ফেলে।
নেত্রকোনা প্রতিনিধি জানান, জেলার কলমাকান্দা সদর ইউনিয়নের বটতলা গ্রামে মঙ্গলবার রাতে কালীমন্দিরে দুর্বৃত্তরা কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে মন্দিরের তিনটি প্রতিমার মাথার চুল ও প্রতিমা সাজানোর কাপড় পুড়ে যায়। সকালে মন্দির কমিটির সভাপতি অনিল বিশ্বাস মন্দিরের দরজা খুললে ভেতর থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখেন।
নওগাঁ প্রতিনিধি জানান, রানীনগরে একই রাতে তুলাবোঝাই একটি গাড়িতে ও ১১টি পরিবারের খড়ের গাদায় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার মধ্যরাতে দুর্বৃত্তরা রাতের বেলায় কুবড়াতলি এলাকার রেজাউলের তুলার মিলের পাশে রাখা তুলাবোঝাই একটি ভটভটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে তুলাবোঝাই ওই ভটভটিটি পুড়ে যায়।

মন্তব্য
সর্বশেষ ১০ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved