rss

সেহরি ও ইফতার | রমজান-

শিরোনাম
বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ফ্রান্স, বিৃবতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র <> 'অধিকার' সম্পাদক আদিলুর রহমান খান ও পরিচালক নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন <> অবরোধকারীদের ছোড়া পেট্রল বোমায় দগ্ধ বীমা কর্মকর্তা শাহীনা আক্তার (৩৮) ও ফল ব্যবাসায়ী মো. ফরিদ (৫০) মারা গেছেন <> সংখ্যালঘুদের ওপর বারবার হামলা হলে তার পরিণাম হবে আত্মঘাতী, মন্তব্য যোগাযোগমন্ত্রীর <> ভারতের মহারাষ্ট্রে চলন্ত ট্রেনে আগুন লেগে এক নারীসহ অন্তত ৯ জন নিহত
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ০৯ জানুয়ারি ২০১৪অ-অ+
printer

সমাধিতে দাঁড়িয়ে হেসে ফেললেন ববি!

নন্দন প্রতিবেদক
কবর খোঁড়া হচ্ছে। সেখানেও উৎসুক জনতার ভিড়! উঠেছে প্রশ্ন_ কে শোবে ওখানে? কিন্তু এই কবর রচনার জন্য এত আয়োজন কেন? আশপাশে পুরনো ও শানবাঁধানো কবর আছে ঠিক। কিন্তু নতুন কবরের জন্য রীতিমতো এলাহি কাণ্ড করা হচ্ছে। ব্যাপারটা কী! গাছের ওপর দিয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থার পাশাপাশি আগরবাতি, অগি্নসংযোগেরও আয়োজন করা হয়েছে। এর মধ্যে খবরটা এলো। পুলিশ কর্মকর্তা জেজমিন আর নেই। তিনি অপঘাতে মারা গেছেন। তাকে ঘিরেই এ আয়োজন। এর জন্য দায়ী ইফতেখার চৌধুরী। হ্যাঁ, পরিচালকের নির্দেশেই তার মৃত্যু ঘটানো হয়েছে এবং কবর তৈরি করা হচ্ছে। এফডিসিতে তখন সন্ধ্যা মিলিয়ে গেছে। শীতের রাতের শুরুটা যেমন তীব্র হয়, ৬ জানুয়ারি তার ব্যতিক্রম নয়। ইফতেখারের 'অ্যাকশন জেজমিন' ছবির সেট পড়েছে এফডিসির নির্দিষ্ট কবরস্থানে। পরিচালক এসেছেন আগেই। পাত্র-পাত্রীরা ৩ নম্বর ফ্লোরের সাজঘরে তৈরি হচ্ছেন। কাজের ফাঁকে ফাঁকে কবরস্থানে দাঁড়িয়ে ইউনিটের লোকদের সঙ্গে পরিচালককে ইন্ডাস্ট্রির ভালো-মন্দ নিয়ে কথা বলতে শোনা গেল। তার আক্ষেপ_ আমাদের দেশের টেকনিশিয়ানরা উপযুক্ত মর্যাদা পেল না। তার কথায় সায় দিলেন অন্যরা। ইফতেখার চৌধুরী জানালেন, তিনি ভবিষ্যতে এ বিষয়টি মাথায় রাখবেন। সেট তৈরি। নতুন কবরের সামনে দাঁড়িয়ে মহড়া চলছে। ববি ও সাইমনের পাশাপাশি থাকবেন আরও দু'জন। ববির পরপরই সেটে ঢুকলেন সাইমন। তারা পরিচালকের নির্দিষ্ট করে দেওয়া জায়গায় দাঁড়ালেন। ক্যামেরায় চোখ রেখে ইফতেখার চৌধুরী ঘোষণা করলেন, 'এ্যাই, এবার বৃষ্টি চালাও'। ববি ও সাইমন দু'জনেই থ। কী বলে পাগল পরিচালক! এই শীতের রাতে বৃষ্টিতে ভিজতে হবে! এমন ভাবতে ভাবতে ওপরের দিকে তাকিয়ে তারা আবিষ্কার করলেন, 'দেয়ার ইজ নো রেইন মেশিন। সো ভেজার কারণ নেই।' ওরা বুঝলেন, পরিচালক দুষ্টুমি করেছেন। কিন্তু আরেকটি বিষয় খেয়াল করলেন 'দুষ্টু পরিচালক'। একি! সবাই জুতা পরে কবরের পাশে দাঁড়িয়ে আছে। এ চলতে পারে না। এবার জুতা খোলার 'বিড়ম্বনা'য় পড়া গেল! যাহোক সব ঠিকঠাক। এখন 'টেক'। লাইট, ক্যামেরা, অ্যাকশন...। ক্যামেরায় দেখা যাচ্ছে গ্গি্নসারিন বেশ ভালোই কাজ করছে, সবাই সুন্দরভাবে কাঁদছে। কিন্তু একি! হঠাৎ সমাধির সামনে দাঁড়িয়ে হেসে ফেললেন ববি...!
মন্তব্য
সর্বশেষ ১০ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved