rss

সেহরি ও ইফতার | রমজান-

শিরোনাম
বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ফ্রান্স, বিৃবতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র <> 'অধিকার' সম্পাদক আদিলুর রহমান খান ও পরিচালক নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন <> অবরোধকারীদের ছোড়া পেট্রল বোমায় দগ্ধ বীমা কর্মকর্তা শাহীনা আক্তার (৩৮) ও ফল ব্যবাসায়ী মো. ফরিদ (৫০) মারা গেছেন <> সংখ্যালঘুদের ওপর বারবার হামলা হলে তার পরিণাম হবে আত্মঘাতী, মন্তব্য যোগাযোগমন্ত্রীর <> ভারতের মহারাষ্ট্রে চলন্ত ট্রেনে আগুন লেগে এক নারীসহ অন্তত ৯ জন নিহত
প্রিন্ট সংস্করণ, প্রকাশ : ০৯ জানুয়ারি ২০১৪অ-অ+
printer

তার নাম অগি্নলা

'বিপ্রতীপ'-এর মায়াময় মিষ্টি মেয়ে অগি্নলার জনপ্রিয়তা এক যুগের বেশি সময় পরেও রোদ্দুরের মতো আলোকিত। হাতেগোনা কয়েকটি কাজ করেও দর্শকের হৃদয় জয় করার এমন নজির ক'টিই বা আছে! গ্রামীণফোনের একটি বিজ্ঞাপনচিত্র তার সাফল্যের পালে নিয়ে এসেছে নতুন হাওয়া। এখন লাইট, ক্যামেরার সানি্নধ্যেই সময় কাটাচ্ছেন তিনি। অগি্নলাকে নিয়ে লিখেছেন জনি হক

জল আর গাছগাছালির আবহে শহরের বুকে অপেক্ষা। অগি্নলা আসবেন। কয়েকদিন ধরে শুটিং আর ক্যামেরার ঘেরাটোপে জীবন কাটছে তার। ব্যস্ততা অবসর দিচ্ছে না তেমন। তবুও সময় বের করলেন। এলেন আড্ডা দিতে। প্রিয়াঙ্কা অগি্নলা ইকবালের সঙ্গে আলাপ পর্বের শুরুতেই প্রশ্ন_ এই যে ছোটাছুটি, এসবে তো আপনি অভ্যস্ত ছিলেন না। হাঁপিয়ে উঠছেন? 'সকাল থেকে রাত অবধি টানা কাজ করলে কিছুটা ক্লান্তি তো লাগেই। তবে ক্লান্ত থাকলেও ক্যামেরার সামনে দেখাতে হয় আনন্দে আছি!'
বাংলাদেশই তার আপনভূমি। পড়াশোনা আর ব্যক্তিজীবনের তাগিদে কানাডায় পাড়ি জমাতে হয়েছিল তাকে। ২০১০ সালে আট বছর পর দেশে ফিরে আবার চলেও গিয়েছিলেন। আবার এসেছেন, আবার গেছেন। কোনোবারই এক মাসের বেশি ছিলেন না। তবে কানাডা থেকে আসার পর এবারই প্রথম এতটা সময় দেশে আছেন। এসেছেন গত বছরের আগস্টে। সব ঠিক থাকলে নিজ ভূমেই এপ্রিলে পহেলা বৈশাখও উদযাপন করবেন। তবে দেশের চলমান অস্থিরতা স্বাভাবিক না থাকায় আনন্দে কিছুটা ভাটা তো পড়ছেই। 'এবার এতটা সময় থাকার সুযোগ পেয়ে ব্যক্তিগতভাবে ভালো লাগছে। তবে আরও ভালো লাগত যদি এমন প্রতিকূল পরিস্থিতি না থাকতো। দেশটা আমার কাছে খুব প্রিয়।'
অগি্নলা নামটি বললেই ঘুরেফিরে আসে 'বিপ্রতীপ'-এর প্রসঙ্গ। একুশে টিভির এই সাড়া জাগানো নাটকের মাধ্যমে তখনই তিনি দেখিয়েছেন সম্ভাবনা, যোগ্যতা আর মেধার ভিন্ন মাত্রা। গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ওই ধারাবাহিকে দীপা চরিত্রে তার অভিনয় আজও দর্শকের কাছে সোনালি সুবাস। টিভি নাটকে নাগরিক সৌন্দর্যের প্রতিনিধির অলিখিত খেতাব যুক্ত তার নামের সঙ্গে। তরুণদের কাছে তিনি যেন স্বপ্নসুন্দরী। এ দেশের বিনোদন অঙ্গন এখনও ভুলে যায়নি তাকে। তাই একের পর এক কাজের প্রস্তাব এসেছে। গত দু'বার সেগুলোর মধ্যে কেবল গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ধারাবাহিক নাটক 'রোদ' হাতে নিয়েছিলেন। এখন পুরোদমে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে তাকে। এবার দেশে ফেরার পর নতুন কী কী যোগ হলো জীবনে? 'গিয়াসউদ্দিন সেলিমের নাটকের বাইরে আগে কাজ করা হয়নি। এবার নতুন নির্মাতাদের সঙ্গে কাজ করছি।'
'বিপ্রতীপ' ও 'রোদ'-এর পর আরেকটি ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন অগি্নলা। নাম 'ফ্যামিলি প্যাক'। প্রযোজনায় মাহফুজ আহমেদ, পরিচালনায় আলী ফিদা একরাম তোজো। এখানে তার চরিত্রের নাম তামান্না। মেয়েটা কম্পিউটার গেমসের পাগল! খণ্ড নাটকের মধ্যে কাজ করেছেন তুষার আবদুল্লাহর রচনা ও সরকার মিলটনের পরিচালনায় 'বিহ্বল ভালোবাসা'য় [কাজী আসিফ]। সামনে কাজ করবেন মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের 'নীল খাম বনাম লাল খাম' [চঞ্চল চৌধুরী], রফিকুল ইসলাম র‌্যাফের 'আউটিং' [নিলয়] ও 'সাউন্ড অব সাইলেন্স'-এ [নাঈম]। অভিনেত্রী হিসেবে আপনি কি সচেতন? "সবাইকে বলি_ আগে গল্পটা দেন। তারপর গল্পটা দর্শক হিসেবে পড়ি। যদি সেটা আমার কাছে আকর্ষণীয় ও কৌতূহল জাগানিয়া মনে হয়, তাহলেই কাজটা করি। আমার কাছে নাটকের প্রথম ভিত্তি হলো গল্প। গল্প ভালো না হলে যত ভালো পরিচালকই হোক আর ভালো অভিনেতা-অভিনেত্রী থাকুক, কাজটা দাঁড়াবে না। আমার নায়িকা হওয়ার ইচ্ছা ছিল না, আমি ভালো অভিনেত্রী হতে চাই।"
টিভি পর্দায় ইদানীং কিছুক্ষণ পরপরই বেজে উঠছে তপুর গাওয়া 'বন্ধু' গানটি। সঙ্গে মায়াময় মিষ্টি হাসির মেয়ে অগি্নলার অভিনয়। বলছি তানভীর হাসানের নির্দেশনায় গ্রামীণফোনের বন্ধু প্যাকেজ বিজ্ঞাপনচিত্রের কথা। বিজ্ঞাপনটি যে কতটা জনপ্রিয় তা তিনি বুঝেছেন এক বন্ধুর বিয়েতে গিয়ে। তখন বর-কনে বাদ দিয়ে ছেলে, মা, খালা সবাই অগি্নলার সঙ্গেই ছবি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে! জানা গেলো, নতুন আরেকটি বিজ্ঞাপনে তার কাজ করার কথা চলছে। আগেও কয়েকটি বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করেছিলেন তিনি। এ তালিকায় আছে হাবিব ফ্যান, মরটিন, কোকাকোলা ও পেপসোডেন্ট। নাটক আর বিজ্ঞাপনচিত্র ছাড়া অগি্নলা এরই মধ্যে এশা ইউসুফের পরিচালনায় 'একটি ফুলকে বাঁচাবো বলে' নামের একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে স্বল্প উপস্থিতির চরিত্রে অভিনয় করেছেন। 'বিপ্রতীপ' খ্যাতি এনে দিলেও অগি্নলার প্রথম নাটক শিশুশিল্পী হিসেবে 'স্বপ্ন শকত'। লিখেছিলেন গিয়াসউদ্দিন সেলিম, পরিচালনা করেছেন আবু সাইয়ীদ। শেক্সপিয়র খুব ভালো লাগতো জেনে মোহাম্মদপুরের সেন্ট ফ্রান্সিস জেভিয়ার্স গ্রীন হেরাল্ড স্কুলের শিক্ষিকা তাকে বার্ষিক পুরস্কার বিতরণের দিন মঞ্চে উঠিয়ে দেন 'দ্য মার্চেন্ট অব ভেনিস' নাটকে পোর্সিয়া চরিত্রে অভিনয়ের জন্য। এর বহু বছর পর কানাডায় 'আমিই বীরাঙ্গনা' নামে একটি মঞ্চনাটকে অভিনয় করেন তিনি। তার কথায়, 'অভিনয়শিল্পের মূল জায়গা মঞ্চ। অভিনয় চর্চা করতে হলে মঞ্চেই কাজ করা উচিত। ঢাকায় নিয়মিত থাকলে এখানে মঞ্চে কাজ করতাম।'
ইউনিভার্সিটি অব টরন্টোতে আন্তজার্তিক উন্নয়ন ও রাজনীতি বিজ্ঞান বিষয়ে পড়েছেন অগি্নলা। আগামীতে কি রাজনীতিতে দেখা যেতে পারে? 'তথাকথিত রাজনীতিতে আসার ইচ্ছা নেই। তবে মানুষের কল্যাণে আমার শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে উন্নয়নমূলক কাজ করব।'
এই বিশ্ববিদ্যালয়ে সত্যজিৎ রায়ের ছবির ওপর একটি কর্মশালায় অংশ নিয়ে সবচেয়ে বেশি নম্বরধারীর তালিকায় স্থান পেয়েছিলেন অগি্নলা। সত্যজিতের প্রায় সব ছবিই তার দেখা। "এসব ছবির মধ্যে 'পথের পাঁচালী' ও 'চারুলতা' ভালো লাগে বেশি। তার ছবিগুলো দেখলে গত ১০০ বছরে বাঙালিদের ইতিহাস সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়। আধুনিকায়নের আগের সময় থেকে শুরু করে নকশাল আন্দোলন সবই জেনেছি এগুলো দেখে।"
এবার কাঙ্ক্ষিত প্রশ্নটা করা যাক। একেবারেই হাতেগোনা কাজ করে জনপ্রিয়তা ধরে রাখার রহস্য কী? 'সৃষ্টিকর্তার আশীর্বাদ আর মানুষের ভালোবাসা। মানুষ আমাকে ভালোবাসে বলেই নির্মাতারা কাজ করতে আগ্রহী হচ্ছেন। সত্যি বলতে-আগের দু'বারই অনেক প্রস্তাব পেয়েছি। তখন থেকেই পরিচিতজনরা বলছিল, কাজ করো। তাই এবার গল্প পছন্দ হলেই কাজ করছি।'
অগি্নলাকে দেখলে মনে হয় চুপচাপ। বাবা চিত্রশিল্পী সৈয়দ ইকবাল ও মা শাহানা ইকবাল মনে করেন, তাদের একমাত্র মেয়ে চালাক-চতুর না। অন্যরা যেখানে নিজের লাভ আগে দেখে, অগি্নলা ঠিক উল্টো। কোনো আফসোস আছে আপনার? 'নাহ্। জীবনে যা ঘটে সবই কল্যাণের জন্য। মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি, সৃষ্টিকর্তা যা-ই করেন, ভালো হয়। তিনি যদি কাউকে দুঃখ দেন, তা-ও ভালোর জন্য। কষ্টকর অভিজ্ঞতা থেকেও কিছু অর্জন করা যায়।'
জীবনে কোনো অপ্রাপ্তি নেই? এই প্রশ্নের উত্তরটা মনে হলো বেশ আনন্দ নিয়েই দিলেন তিনি_ 'সবারই ছোটবেলা থেকে লক্ষ্য থাকে, ডাক্তার কিংবা ইঞ্জিনিয়ার অথবা আইনজীবী হওয়ার। কিন্তু আমি বরাবরই চেয়েছিলাম সুখী হতে। আলহামদুলিল্লাহ আমি সুখী।'
ছাত্রী, মডেল ও অভিনেত্রী পরিচয়ের বাইরে অগি্নলা এখন সংসারীও। 'বিপ্রতীপ'-এর সহশিল্পী নাবিলকে বিয়ে করেছেন। তার শ্বশুর-শাশুড়ি উদার মানসিকতার, তাই অগি্নলার কাজ করে যাওয়াকে সমর্থন করেন তারা। আনন্দ হয় কীসে? 'আমি ঘুমপ্রিয় মানুষ। সময়মতো খাওয়া, ঘুম আর পরিবার ও বন্ধুদের সানি্নধ্য পেলেই আমি খুশি। এসবেই আমার আনন্দ। আমার আসলে খুব বেশি চাহিদা নেই।'
চট্টগ্রামের মেয়ে অগি্নলার জন্মদিন আর ক'দিন বাদেই [২৮ জানুয়ারি]। জন্মদিনের আগাম শুভেচ্ছা জানিয়ে আড্ডার শেষ বেলায় আরেকটি প্রশ্ন। একদিন সকালে ঘুম থেকে জেগে উঠে দেখলেন, আপনি আর জনপ্রিয় নন! ফিরে গেছেন 'বিপ্রতীপ'-এর আগের জীবনে। কেমন লাগবে? 'কোনো অসুবিধা নেই। আগেই তো বলেছি আমি সর্ব-হ্যাপি!' হ
মন্তব্য
সর্বশেষ ১০ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved