rss

সেহরি ও ইফতার | রমজান-

শিরোনাম
বাংলাদেশের পরিস্থিতি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ফ্রান্স, বিৃবতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র <> 'অধিকার' সম্পাদক আদিলুর রহমান খান ও পরিচালক নাসির উদ্দিন এলানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন <> অবরোধকারীদের ছোড়া পেট্রল বোমায় দগ্ধ বীমা কর্মকর্তা শাহীনা আক্তার (৩৮) ও ফল ব্যবাসায়ী মো. ফরিদ (৫০) মারা গেছেন <> সংখ্যালঘুদের ওপর বারবার হামলা হলে তার পরিণাম হবে আত্মঘাতী, মন্তব্য যোগাযোগমন্ত্রীর <> ভারতের মহারাষ্ট্রে চলন্ত ট্রেনে আগুন লেগে এক নারীসহ অন্তত ৯ জন নিহত
প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০১৪, ১২:৪৯:১৯ | আপডেট : ০৮ জানুয়ারি ২০১৪, ১৪:২৮:১৫অ-অ+
printer

'রাষ্ট্র সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তায় ব্যর্থ হয়েছে'

সমকাল প্রতিবেদক
রাষ্ট্র সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিতে ‘সম্পূর্ণ ব্যর্থ’ হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান।'রাষ্ট্র সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তায় ব্যর্থ হয়েছে'
মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান। ফাইল ছবি।
 
বুধবার বেলা ১২টার দিকে রাজধানীর বিচার, প্রশাসন ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে জাতীয় আইন কমিশন আয়োজিত 'বৈষম্য বিলোপ আইন প্রণয়ণ' শীর্ষক এক সেমিনারে তিনি এ অভিযোগ করেন।
 
ড. মিজানুর রহমান বলেন, "রাষ্ট্র সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। এ ব্যর্থতা যেন প্রলম্বিত না হয়। ব্যর্থতা প্রলম্বিত হলে দেশ বিপন্ন হয়ে যাবে। মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার চেতনা ভূলুণ্ঠিত হয়ে যেতে পারে।"
 
তিনি বলেন, "নির্বাচনোত্তর সহিংসতায় দেশে হাজার হাজার সংখ্যালঘু আক্রান্ত হয়েছে। নির্বাচনের আগে সরকার আমাদের আশ্বস্ত করেছিল। বলা হয়েছিল, নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সেনাবাহিনী থাকবে। কিন্তু দেখলাম নির্বাচনের আগে এক প্রিজাইডিং অফিসারকে হত্যা করা হলো। নির্বাচন শেষ হওয়ার পর সংখ্যালঘুদের বাড়িতে লুটপাট-হামলা করা হলো।"
 
মানবাধিকার কমিশন চেয়ারম্যান বলেন, "এখনই এই সহিংসতা রুখতে হবে। প্রতিটি নাগরিকের নিরাপত্তার দায়িত্ব রাষ্ট্রের।"
 
সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন আইন কমিশনের চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হক।
 
তিনি বলেন, "সংবিধানের ত্রয়োদশ সংশোধনী বাতিল করা হয়েছিল গণতন্ত্রকে প্রবাহমান রাখার জন্য, বাধাগ্রস্থ করার জন্য নয়। পূর্ণাঙ্গ রায়টি পড়লেই আপনারা তা বুঝতে পারবেন।"
 
ত্রয়োদশ সংশোধনীর মামলাটি আপিল বিভাগে শুনানির সময় অ্যামিকাস কিউরিদের বক্তব্য গ্রহণ করা হয়েছিল—উল্লেখ করে তিনি বলেন, "আমরা তাদের [অ্যামিকাস কিউরি] কাছে জানতে চেয়েছিলাম যে, কেন এটা [ত্রয়োদশ সংশোধনী] বাতিল করা হবে না। তারা কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। এ কারণেই ত্রয়োদশ সংশোধনীটি বাতিল করতে বাধ্য হয়েছি।"
 
তিনি বলেন, "আমাদের সংবিধান ও আইন তিন মাসের জন্য জনগণের সামনে থাকবে না, এটা সমর্থন করে না। জনগণই দেশের একমাত্র মালিক। জনগণের ইচ্ছায় এদেশ পরিচালিত হচ্ছে। জনগণের সার্বভৌমত্ব একদিনের জন্যও স্থগিত রাখা যায় না।"
 
নির্বাচনোত্তর সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন প্রসঙ্গে আইন কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, "যারা সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা করেছে, বাড়িঘরে হামলা করেছে তারা দুষ্কৃতিকারী। তাদের রাজনৈতিক পরিচয় আছে বলে আমি মনে করি না। সংখ্যালঘুরা আজ নিগৃহীত ও নির্যাতিত হচ্ছে। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক।"
 
সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন কমিশনের সদস্য অধ্যাপক শাহ আলম ও সচিব একেএম আশরাফুল ইসলাম।
 
এতে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন কমিশনের মুখ্য গবেষণা কর্মকর্তা ফৌজুল আজিম।
এ সংক্রান্ত আরো খবর
মন্তব্য
সর্বশেষ ১০ সংবাদসর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার
প্রকাশক : এ কে আজাদ
ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫  ৮৮৭০১৯৫
ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১  ৮৮৭৭০১৯৬
বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০
১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ বেআইনি
powered by :
Copyright © 2017. All rights reserved